দীর্ঘদিন বন্ধুত্বের পর ছেলেটি হঠাৎ মেয়েটিকে বললো তোমাকে আমি ভালোবাসি


দীর্ঘদিন বন্ধুত্বের পর ছেলেটি  হঠাৎ মেয়েটিকে  বললো তোমাকে আমি ভালোবাসি, ভালোবাসার পাওয়ার চেয়ে না পাওয়ার বেদনা অনেক কষ্টের,  ভালোবাসার গল্প, জীবনের গল্প, ভালোবাসার মায়া, ভালোবাসার কষ্ট, ভালোবাসার এতো মায়া, ভালোবাসার অবহেলিত কথা, বাংলা ভালোবাসার গল্পগুজব, বন্ধু থেকে ভালোবাসা প্রেম, ভালোবাসার সংগৃহীত গল্প
image Google

দীর্ঘদিন বন্ধুত্বের পর ছেলেটি হঠাৎ মেয়েটিকে বললো তোমাকে আমি ভালোবাসি মেয়েটি লজ্জায় মাথা নিচু করে টেবিলে আকিবুকি কাটলো ছেলেটি শুধু মুচকি হাসঁলো উত্তর দেবার জন্য মেয়েটিকে একদিন সময় দিলো

পরদিন মেয়েটি ছেলেটিকে জিজ্ঞেস করলো কেন ভালোবাসো আমায়? আমি সুন্দরী তাই? তোমার চেয়েও সুন্দরী আছে কত আমার বাবার প্রচুর অর্থ তাই? তোমার বাবার চেয়েও বড়লোক এখানে কম আছে তাহলে? ভালোবাসি তাই ভালোবাসি,তাহার
আবার কারণ হয় নাকি?

মেয়েটি বাড়ি ফিরে সব বন্ধুদের সাথে অনেক আলোচনা করলো,সবাই একবাক্যে বুঝিয়ে দিলো
ভালো যখন বাসে তখন একটা কিছু কারণ তো
আছে বটেই,,সেটা না বুঝে বেশি এগোস না। পরদিন অনেক দ্বিধান্বিত মুখ নিয়ে মেয়েটি ছেলেটিকে জিজ্ঞেস করলো। আমার কাছে কি চাও? চাইনি তো কিছু.। ভালোবাসো অথচ
চাওনা,তাহলে.?!!

না চাহিলে যারে পাওয়া য়ায়। এটা তো গান। শুধুই কি গান? তাছাড়া কি,কিছু যদি না চাও তাহলে ভালোবাসো কেন? ভালোবাসি তাই ভালোবাসা
দিতে চাই চাইবো কেন? তুমি সত্যিই অদ্ভুত হ্যাঁ জানি তো আমি পরদিন মেয়েটি আবার বললো। জানো আমার বন্ধুরা বলেছে তুমি খুব খুউউব ভালো,অসাধারণ কিন্তু তুমি স্মৃষ্টিছাড়া

হা হা হা,হ্যাঁ সেটাও জানি আমি আচ্ছা সত্যি তুমি কি চাও বলোতো? তুমি আরো সার্থক আরো সুন্দর হয়ে উঠো,সবসময় অনেক ভালো থাকো
আর হাসিঁটা ধরে রাখো ব্যাস আর কিছুনা? আর উমম আর চাই স্বপ্ন দেখতে স্বপ্ন ছেড়ে বাস্তবে আসতে পারোনা তুমি?

নাহ পারিনা তাই তাহলে তো তুমি আমায় হারাবে। তোমায় পাইনি তো কখনও কিন্তু আমি যে হারাতে চাইনা তাই তাহলে কি চাও? আমি চাই তুমি আর তোমার স্বপ্নের সাথে থাকতে তাহলে বলো কি বলবো? সেদিনের সেই উত্তর টা উমম হ্যাঁ আমি ভালোবাসি তোমাকে সারাজীবন তুমি আর
তোমার স্বপ্নের সাথেই থাকতে চাই। 

আরো পড়ুন:

ভালোবাসার পাওয়ার চেয়ে না পাওয়ার বেদনা অনেক কষ্টের


আমি বুঝতে পারি নাই প্রেম টিকিয়ে রাখতে হলে গাঁজাখোর, লুচ্চা অথবা অতিরিক্ত বেহায়া হতে হয়।

আনুষ্ঠানিক কোন ব্রেকআপ আমাদের হয়নি।
আমার দোষ ছিলো একটাই, কেন আমি তার সাথে লুটুপুটু প্রেম আলাপ করতাম না। হয়তো আমার এই ভদ্র ভাষার কথাগুলা তার কাছে বোরিং লাগতো। তাই সে বেছে নিয়েছিলো অন্য একজনকে।
নতুন বয়ফ্রেন্ডের পিক ও তাদের কিছু লুটুপুটু চ্যাটিং আমাকে সেন্ট করে সেদিন বলেছিলো, "আশা করি সব দেখে বুঝতে পেরেছো তোমার অযোগ্যতা কোথায় ছিলো। তাই আর অযথা আমাকে বিরক্ত করবে না।"
কথাটা বলেই সব জায়গা থেকে আমাকে ব্লক দিয়েছিলো। ভেবেছিলো হয়তো আমি তাকে ইমোশনাল ব্লাকমেইল করবো। এই সুযোগটা সে আমাকে দিতে চাই নাই।
আমিও আর বাড়াবাড়ি করি নাই।
হৃদয়ে ঠিকই ছিলো, কিন্তু সবকিছু চেপে রেখে ক্যারিয়ার নিয়ে খুব বেশি ব্যস্ত হয়ে পড়লাম।
মাঝে তার এক আত্মীয়র কাছে শুনলাম তার প্রেমিকের সাথে তার বিয়ে ঠিক হইছে।
শুনে খুশি হয়েছিলাম, কারন আমার কাছে ভালোবাসা মানে প্রিয় মানুষটা ভালো থাকা।

যাহোক কিছুদিন আগে হঠাৎই তার কাছ থেকে মেসেজ পেলাম। মেসেজটা এমন ছিলো, " আবির, তুমি আমার লাইফে সেরা ছিলা। তোমাকে আমি আজও ভুলতে পারি নাই।"

আমি তার মেসেজের কোন রিপ্লে করি নাই। শুধু মেসেজটা পড়েই তাকে ব্লক দিয়ে দিয়েছিলাম।

আজ এক ফ্রেন্ডের মাধ্যমে জানতে পারলাম তার বিয়েটা ভেঙ্গে গিয়েছিলো। আর বিয়ে ভেঙ্গে যাওয়ার পরেই সে আমাকে নক দিয়েছিলো।

আসলে আমরা ছেলেরা একেকটা খেলনার পুতুল। মেয়েরা যেভাবে ইচ্ছা, যখন ইচ্ছা, আমাদের নিয়ে খেলবে।
অবশ্য মেয়েদের দোষ নাই, কারন তাদের এই খেলার সুযোগটাও দিয়ে থাকি আমরা ছেলেরাই। আপনি সুযোগ না দিলেও অন্য কোন ছেলে ঠিকই সুযোগ দিবে।

Post a Comment

1 Comments

Anonymous said…
অসাধারণ গল্প অনেক ভালো লাগলো