এই বাবু উঠো উঠো না। ভালোবাসার এতো মায়া কেনো? Love Story bangla


ভালোবাসার গল্প, জীবনের গল্প, ভালোবাসার মায়া, ভালোবাসার কষ্ট, ভালোবাসার এতো মায়া, ভালোবাসার অবহেলিত কথা, বাংলা ভালোবাসার গল্পগুজব, ভালোবাসার সংগৃহীত গল্প
image Google

প্রতি দিনের ন্যায় আজও মেয়েটি ঘুম থেকে ছেলেটির আগে উঠে তাহাজ্জত নামাজ পড়ে। অতঃপর শেষ প্রহরে মেয়েটি ছেলেটিকে ঘুম থেকে উঠাতে চেষ্টা করে। এই বাবু উঠো । উঠো না। দেখো না সেহেরীর শেষ সময় চলে এসেছে তুমি সেহেরী খাবে উঠো ।

মেয়েটির আদুরে ডাক উপেক্ষা করিতে না পেরে ছেলেটি উঠে পড়ে। মেয়েটির প্রতিটি কথা যেন মায়া মাখা। ডাকিলেই যেন বুকের ভিতরে একটা সিহরণ জাগিয়ে তোলে। ছেলেটি ফ্রেশ হয়ে আসিলে মেয়েটি হাত বাড়িয়ে তোয়ালেটা দেয়। সেহেরী খাওয়ার শেষ করে মেয়েটি ছেলেটিকে কোরআন হাদিসের গল্প শুনায়। ধর্মের কথা হওয়ায় একান্ত বাধ্য হয়ে ছেলেটিও তার বাবুর্নির কথা শুনে।

মাঝে মাঝে ছেলেটি নামাজের একটু আলসেমি করে। কিন্তু মেয়েটির মায়া মাখা কথার ঝলকানিতে ছেলেটি চলে যায় নামাজে। নামাজ শেষ করে ফিরে এসে দেখে বাবুর্নি পাটিতে বসে কোরআন তেলোয়াত করছে। ছেলেটিক আসিতে দেখে মেয়েটি উঠে ছেলেটির কাজ থেকে জায় নামাজের পাটিটা এগিয়ে নেয়। এই বাবু চলো না একটু হাঁটি। ছেলেটি মনে মনে একটু রাগ করে।

ইশ কোথায় সকালে একটু রোমান্স করিব তা না
হাঁটিতে হবে। কিন্তু কি আর করার মেয়েটি এমনভাবে আদুরে করে বলে যে কলিজাতে গিয়ে আঘাত করে । বেচারা আর না করিতে পারে না।প্রতিদিনের মত আজও হাঁটিতে বাহির হইলে ছেলেটি আলতো করে মেয়েটির কপালে চুম্বন একেঁ দেয়। দুপাশে সুপারি গাছের সারি।

শিশির ভেজা সিক্ত ঘাসের উপর দিয়ে ওরা দুজনে
হাঁটছে। হাঁটার সময় একে পরের হাতে আঙুল ঠেকে আবার ছেড়ে দেয় । ছেলেটি মাঝে মাঝে অপলক দৃষ্টিতে মেয়েটির দিকে তাকায়। মেয়েটিও আড় চোখে তাকায় আর মুচকে মুচকে হাসে। মেঘাচ্ছন্ন আকাশ । ঝিরি ঝিরেয়ে বৃষ্টি পড়ছে । হাঁটিতে হাঁটিতে ওরা দুজনে একটি গাছের নিচে দাঁড়ায় । পাশা পাশি গা ঘেঁসে ওরা দাঁড়িয়ে আছে।

গাছের ডালে বসা একজোড়া বিহঙ্গমালাও হার
মেনে যায় তাদের ভালবাসার কাছে । ঝুম ঝুমকরে বৃষ্টির প্রবণতা বেড়েই চলেছে। হঠাৎ মেয়েটি বলে উঠে বাবু চলো না বৃষ্টিতে ভিজি। ছেলেটির কথা বলার অপেক্ষা না করেই মেয়েটি একটু দৌড়ে ফাঁকা জায়গাতে গিয়ে দু হাত প্রসারিত করে আকাশের দিকে তাকিয়ে বৃষ্টি আগলে রাখিতে চেষ্টা করে। ছেলেটি মেয়েটির দিকে অপলক দৃষ্টিতে চেয়ে থাকে। মেয়েটি হাতের ইশারা করে তাকে বলে আসো না বাবু তুমিও ভিজবে।

অপলক দৃষ্টিতে তাকিয়ে ছেলেটি না সুঁচক মাথা নাড়ায়। ক্ষনিক পরে মেয়েটি ছেলেটির হাত ধরে বৃষ্টি ভিজা পদ যুগলের ছাপ রেখে চলে যায় তাদের গন্তব্যের ঠিকানায়। হাঁটিতেছে , ওরা হাঁটিতেছে বৃষ্টির মধ্যদিয়ে চিরচেনা সেই পথ বেয়ে একটি ভোরের গল।

Post a Comment

0 Comments