Facebook SDK


নামাজ না পড়লেও ইমান মজবুত - ইসলামিক শর্ট স্টোরি বাংলা

মুয়াজ্জিনের সুললিত কন্ঠে ভেসে আসছে আজানের সুর.. পা বাড়ালাম মসজিদের দিকে। আসরের নামাজ শেষ করে মসজিদ থেকে বেরিয়ে আমি আর রাশিদ পাশাপাশি হাটছিলাম।পথে রাতুলের সাথে দেখা।

'আসসালামু আলাইকুম',দুজনেই ওকে সালাম দিলাম।
'ওয়া আলাইকুমুসসালাম।
'কিরে তোকে নামাজে দেখলাম না!' ,আমি বললাম।
নামাজ না পড়লেও তোদের থেকে আমার ইমান মজবুত আছে। এ কেমন কথা? নামাজ না পড়লে ইমান কিভাবে মজবুত থাকে?

'ইমান মানে বিশ্বাস, আর আমার বিশ্বাস তোদের থেকে অনেক বেশিই আছে। শুধু নামাজ পড়িনা এই আরকি। কিন্তু ইমান ঠিকই আছে। ইমান না থাকলে নামাজ পড়ে কি হবে।আমি নামাজ না পড়লেও আমার ইমান পাক্কা।

একমত হতে পারলামনা। রাশিদ বলল।
কেন ভুল কিছু বলেছি আমি? শেষের দিকে একটা সত্য কথা বললেও বাকি সব ভুল ছিলো। কিভাবে? বুঝা আমাকে।

ইমান মানে প্রচলিত অর্থে বিশ্বাস হলেও ইমান দ্বারা বুঝায় অন্তরে বিশ্বাস, মুখে স্বীকার এবং কর্মের মাধ্যমে বিশ্বাসের প্রমাণ দেয়া। এখন তুই বলছিস যে নামাজ না পড়লেও ইমান আছে! ইমানের ৩য় ধাপটা বাকি রয়ে গেলো।আচ্ছা কয়েকটা প্রশ্ন করি সঠিক উত্তর দিস। তুই কি বিশ্বাস করিস যে নামাজ প্রত্যেক মুসলমানের জন্যে ফরজ?'

অবশ্যই করি।
নামাজ না পড়লে শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে?'
হুমম বিশ্বাস করি।

'আচ্ছা তোকে একটা উদাহরণ দেই,ধর তুই একটা স্কুলের শিক্ষক। এখন ক্লাসে গিয়ে ছাত্রদের একটা প্রশ্ন লেখতে দিলি।মোট মার্ক দশ। সবাই কিছু না কিছু লিখলো আর একটা ছাত্র কিছু না লিখে খালি খাতা জমা দিয়ে বলল যে, আমি খাতায় না লিখলেও অন্য সবার থেকে এ ব্যাপারে বেশি জানি। জানা থাকলে খাতায় না লিখলেও চলে। এবার বল তুই তাকে দশের মধ্যে কত দিবি?'

free islamic quotes images 

এক নম্বরও দিবোনা। তার এমন অহেতুক কথার জন্য শাস্তিও দিতে পারি।

'তাহলে এখন বল ইমান আছে বলে তুই কি করে নামাজ ছেড়ে দিতে পারিস? আর নামাজ না পড়লে ইমান আছে একথা প্রমান হবে কিভাবে?কারণ ইমানের শর্ত হলো কাজের মাধ্যমে প্রকাশ করতে হবে।যে বিশ্বাস করে সে তা পালনও করে আর যার বিশ্বাসে গণ্ডগোল আছে সে শুধু ফাকা বুলি আওড়ায়।আল্লাহ কোর-আনে বলেছেন,

"আর মানুষের মধ্যে কেউ আছে যে বলে,'আমরা আল্লাহতে স্বীকার করি এবং শেষদিন স্বীকার করি'-কিন্তু তারা মোটেও ইমানদার নয়।"(সূরা আল-বাক্বারাহ:৮)

এভাবেতো কখনো ভেবে দেখিনি। এতোদিন ভুল চিন্তা নিয়ে চলেছি। তুই আমার চোখ খুলে দিয়েছিস বন্ধু।

আলহামদুলিল্লাহ, হেদায়াতের মালিক আল্লাহ।আশা করি মাগরিবের নামাজে দেখা হচ্ছে?
ইন-শা আল্লাহ
ইন-শা আল্লাহ।এবার আসি তাহলে। একটু কাজ আছে।
আচ্ছা ঠিক আছে। আসসালামু আলাইকুম।
ওয়া আলাইকুমুসসালাম।

আমিও সালাম জানিয়ে রাশিদের সাথে চলে আসলাম। আর মনে মনে ভাবতে লাগলাম কি সুন্দর করেই না একটা অবুঝ মনকে বুঝ দিয়ে দিলো।সত্যি এসব ব্যাপারে আল্লাহ রাশিদকে অসাধারণ প্রতিভা দান করেছেন।

লেখক: নাবিল হাসান

Post a Comment

কমেন্টে স্প্যাম লিংক দেওয়া থেকে বিরত থাকুন

Previous Post Next Post