এই প্রশ্নটির উত্তর দিতে গেলে কত কথা যে মাথায় আসবে তা গুছিয়ে লেখা সম্ভব না।

মায়েরা আসলে মানুষ হয়না। মায়েরা মানুষের থেকে উপরের স্তরের কিছু হয়। সব কিছু বুঝে নেয়ার এক অসীম ক্ষমতা থাকে মায়েদের।



আমার বয়স ২৫ হতে চললো। কিন্তু আমি আমার মায়ের কাছে আজও ৫ বছরের বাচ্চার মতোই। আমি ভার্সিটিতে নিজে বাজার করি, রান্না করি, সব করি। কিন্তু যখনই বাসায় আসি আমি বাসা থেকে ১ মিনিট দূরত্বের কোথাও যেতে চাইলেও আম্মু আমার সাথে যাবেন। যেন আমি কিছু চিনিনা।
আমি সচরাচর ১৫ দিন অন্তর বাসায় আসি।এই ১৫ দিনে আমার মাকে কেউ কোনো খাবার দিছে আর আমার মা সেটা পুরোটা খেয়ে নিবেন এমন হয়নি। আম্মু সেই সব কিছু জমিয়ে রাখেন। এমন না যে আমি সেগুলো খায় না। আম্মু জমিয়ে রেখেই শান্তি পান। এমন ও হয় সেগুলো আর ঠিক মতো খাওয়া যায়না। তাও। মায়েরা এমনই হয়।
এবার আমি ২ মাস পর বাসায় আসলাম। এহেন কোনো জিনিস নাই , যেটা আম্মু জমিয়ে রাখে নাই। কেউ হয়তো চকলেট দিছে, আম্মু জমিয়ে রাখছে।



গতকাল ইফতারের সময় বিশাল পুটলি বের করলেন ফ্রিজ থেকে। সেই খানে দই মিষ্টি থেকে শুরু করে তিন চার রকমের বরই, সফেদা,কদবেল, চকলেট, চিপ্স, তেতুল, আতা নেই কি? অনেক কিছু আর খাওয়া যাবে না, তাতে কি! মায়েরা যে এমনই হয়।



ছবিতে আম্মুর জমানো চকলেট।
ইফতার করতে বসলাম। আমি, ভাইয়া, আম্মু; আম্মু বললেন ১ টা জান, ২ টা জান ( আমাদের দুজনের দিকে চেয়ে)। আসলে মায়েরা এমনি হয়।

Post a Comment

কমেন্টে স্প্যাম লিংক দেওয়া থেকে বিরত থাকুন

Previous Post Next Post