দরজার আড়ালে লুকিয়ে আছেন। আপনার উদ্দেশ্য কাউকে ভয় দেখানো।


দরজার আড়ালে লুকিয়ে আছেন। আপনার উদ্দেশ্য কাউকে ভয় দেখানো। আপনার বড় বোন বাহির থেকে এসেছে। সাধারণত ছোট ভাইয়েরা বড় বোনদের সাথে প্রায়ই মজা করে থাকে। এজন্য আপনিও মজা করার উদ্দেশ্যে দরজার আড়ালে লুকিয়ে আছেন। বোন রুমে ঢোকা মাত্রই আপনি দরজার আড়াল থেকে 'ভাউ' বলে চিৎকার করলেন। সাথে সাথে সে ভয়ে কেঁপে উঠলো। 

প্র‍্যাঙ্ক  অতি পরিচিত একটি শব্দ। আমরা প্রায়ই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বন্ধুদের সাথে, ভাই-বোনদের সাথে, নিকটাত্মীয়ের সাথে প্র‍্যাঙ্ক করে থাকি। দরজার আড়ালে লুকিয়ে থেকে ‘ভাউ’ বলে ভয় দেখাই। আবার কেউ কেউ এমনও আছে, যারা তেলাপোকা, টিকটিকি ইত্যাদি ভয় পায়। তখন তার সাথে প্র‍্যাঙ্ক করার জন্য, তাকে ভয় দেখানোর জন্য তেলাপোকা আর টিকটিকিকে বেছে নিই। তেলাপোকা ও টিকটিকির মাধ্যমে ওই ব্যক্তিকে ভয় দেখাই। 

দরজার আড়ালে লুকিয়ে আছেন। আপনার উদ্দেশ্য কাউকে ভয় দেখানো।


আসলে প্র‍্যাঙ্কের  উদ্দেশ্য এভাবে কাউকে ভয় দেখানো কি ঠিক? নাকি এ ব্যাপারেও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে? এ ধরনের প্র‍্যাঙ্ক কি ভালো কাজ? আসুন জেনে নিই, এ- ব্যাপারে ইসলাম কী বলে।  এ- ধরনের  প্র‍্যাঙ্ক মোটেও ভাল কাজ নয়। আর শরীয়তও এটাকে সমর্থন করে না। ইসলাম আগে থেকেই এ ব্যাপারে সতর্ক বার্তা দিয়ে গেছে। 

আবদুর রহমান ইবনু আবূ লাইলাহ রহি. থেকে বর্ণিত: নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন: 

কোন মুসলিমের জন্য অন্য মুসলিমকে ভয় দেখানো বৈধ নয়। ( সুনানে আবু দাউদ- ৫০০৪) 

অর্থাৎ, ঠাট্টাচ্ছলে কাউকে ভয় দেখানো বৈধ নয়। সুতরাং, এমনিভাবে কেউ কাউকে ভয় দেখানো মোটেও উচিত নয়। কেননা, এভাবে হুট করে ভয় দেখালে মানুষের মস্তিষ্কে আঘাত হানে। সুতরাং এ ব্যাপারে আমাদেরকে সতর্ক থাকা উচিত। 

আর তাছাড়া, ভয় নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করলে জানতে পারবেন, এই ভয় থেকে কতশত মানুষ কতটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দুষ্টামির ছলে কেউ কাউকে ভয় দেখানোর পর সে এমন ভয় পেয়েছে যে, শেষ পর্যন্ত এই ভয়ই তাকে বড়োসড়ো বিপদের মুখে ফেলে 


অনেক সময় আমরা বাচ্চাদের সাথেও এসব দুষ্টামি করে থাকি। দুষ্টামি করে তাদেরকে ভয় দেখাই। আর এই ভয়'টাই তাদের মস্তিষ্কে বারবার ঘুরপাক খায়। যার কারণে রাতে ঘুমের মধ্যে তারা বারবার কেঁদে উঠে। বারবার সজাগ হয়ে যায়। 

~ লেখাটি নেয়া হয়েছে— "জীবনের আয়না" বই থেকে...

Post a Comment

কমেন্টে স্প্যাম লিংক দেওয়া থেকে বিরত থাকুন

Previous Post Next Post